,

৫২ লাখ সৌদি নারী-পুরুষের বয়স হলেও বিয়ে হয়নি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

বিয়ের বয়স শেষ হওয়ার পরেও সৌদি আরবে অবিবাহিত রয়ে গেছেন ৫২ লাখ ২৬ হাজারের বেশ নারী-পুরুষ। এর মধ্যে পুরুষ প্রায় ৩০ লাখ এবং নারী ২২ লাখ ৬১ হাজার।

২০১৭ সালের দ্বিতীয় প্রান্তিকে সাধারণ পরিসংখ্যা কর্তৃপক্ষের সর্বশেষ জনসমীক্ষায় এ তথ্য উঠে এসেছে। দেশটির মোট জনসংখ্যা তিন কোটি আট লাখের বেশি। ওই সমীক্ষায় উল্লেখ করা হয়েছে, সৌদি আরবের এক হাজার ২২৫ জন নাগরিকের ওপর এই সমীক্ষা চালানো হয়। এঁদের মধ্যে ৮০৫ জন পুরুষ ও ৫২০ জন নারী ছিলেন। এতে দেখা যাচ্ছে, দেশটির মোট জনসংখ্যার প্রায় ৩০ লাখ এক হাজার ২৬৪ জন পুরুষ ও ২২ লাখ ৬১ হাজার ৯৪৬ জন নারী অবিবাহিত রয়েছেন। সমীক্ষা বলা হয়েছে, ৩৯ দশমিক ৯ বছর পেরিয়ে গেলে পুরুষদের এবং নারীদের ক্ষেত্রে ৩৬ দশমিক ৪ বছর পেরোলে আর বিয়ে হয় না।

আল-ওয়াতান নামের একটি সৌদি দৈনিককে এক সৌদি নারী বলেন, তাঁর দেশের বেশির ভাগ পরিবার মাধ্যমিক শিক্ষার পরপরই মেয়েদের বিয়ে দিয়ে দেয়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই নারী আরো বলেন, ‘স্নাতক শেষ করার আমি বিয়ে করব বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমার বয়স যখন ১৯ ছিল, একজন ভদ্রমহিলা আমার বাবা-মার ফোন নম্বর নিয়েছিলেন, বিয়ের প্রস্তাবের ব্যাপারে কথা বলতে।’

ওই দৈনিকটিকে ৩৭ বছর বয়সী এক সৌদি পুরুষ বলেন, ‘উপযুক্ত কনে খোঁজার আমি বহু চেষ্টা করেছি। কিন্তু বয়সের পার্থক্যের কারণে সব নারীই আমায় প্রত্যাখ্যান করেছে। আমাকের বারবার জিজ্ঞাস করা হয়, কেন আমি এখনো বিয়ে করিনি।’

দেশটির মাজমা বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. হুমাইদি আল-ধাইদান সংবাদমাধ্যমটিকে বলেন, ‘দেশের তরুণ-তরুণীদের প্রত্যেকেই একজন সুন্দর জীবনসঙ্গী চান। তাঁরা ভাবেন, নিজেদের স্বপ্নের বর-কনে তাঁরা পেয়ে যাবেন। আধুনিক প্রযুক্তি ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি তথ্য বিপ্লব ঘটে যাওয়ার কারণে তাঁদের বেশির সেখানে যুক্ত থাকছেন।’

মতামত.........