,

জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে বাঁশখালীতে নিহত ১, গুলিবিদ্ধ ৭

মুহাম্মদ মিজান বিন তাহের, বাঁশখালী প্রতিনিধিঃ

চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার খানখানাবাদ ইউনিয়নে ডোংরা গ্রামের মুন্সি পাড়া এলাকায় জায়গা জমির সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে দু’পক্ষের সংর্ঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সোমবার (১৯ মার্চ) দুপুরে স্হানীয় নুরুল কাদের ও সাবেক ইউপি সদস্য ফিরোজ উদ্দীন গ্রুফের সাথে এ সংর্ঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংর্র্ঘষ চলাকালীন সময় এলাকার চিহ্নিত ডাকাত জেবল হোসেন বাবুল ও মিয়ার নেতৃত্বে ৭-৮ রাউন্ড গুলি বর্ষণ করে অন্য পক্ষের উপর। গুলিবিদ্ধ হয়ে এলাকার মৃত নওশা মিয়ার পুত্র ফররুখ আহমদ প্রকাশ লেদু (৪৫) চমেক হাসপাতালে ভর্তির পূর্বেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। এসময় গুলিবিদ্ধ হয়ে অন্তত ৬ জন আহত হয়েছে।অন্যান্য আহতদের চমেক হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, খানখানাবাদের ডোংরা গ্রামের মুন্সি পাড়া এলাকার আজিজুর রহমানের পুত্র নুরুল কাদের ও মফজল আহমদের পুত্র সাবেক ইউপি সদস্য ফিরোজ উদ্দীনের সাথে দীর্ঘদিন যাবৎ জায়গা-জমির বিরোধ চলে আসছিল। সেই বিরোধের জের ধরে সোমবার দুপুরে চায়ের দোকানে আড্ডারত অবস্থায় ফিরোজ উদ্দীনের উপর অতর্কিত হামলা করে বিপক্ষের লোকজন। হামলার খবর ছড়িয়ে পড়লে ফিরোজ উদ্দীনের গ্রুফও পাল্টা হামলার প্রস্তুতি নিলে চরম আকার ধারণ করে। এসময় সাত থেকে আট রাউন্ড গুলি বর্ষণের ঘটনা ঘটায়। গুলিবিদ্ধ হয়ে ফররুখ আহমদ প্রকাশ লেদু নামে একজনের মৃত্যু হয়। তা ছাড়া গুলিবিদ্ধ হয় অন্তত পাঁচজন।

এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান বদরুদ্দিন চৌধুরী জানান, জায়গা-জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে দুপক্ষের মধ্যে সংর্ঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংর্ঘর্ষে ফররুখ আহমদ লেদু নামে একজনের মৃত্যুর খবর পরিবার সূত্রে জেনেছি।

এ বিষয়ে থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ সালাহ উদ্দীন হিরা বলেন, ঘটনা স্থলে আমি নিজে এবং অতিরিক্ত পুলিশ সদস্যরা রয়েছি। ঘটনার সাথে যারা জড়িত তাদের চিহ্নিত করে গ্রেফতারের অভিযান চলছে।

মতামত.........