,

৪ লাখের বেশি আবেদন সু চি’র নোবেল ফিরিয়ে নেওয়ার দাবিতে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, সংবাদ সবসময়:

চার লাখের বেশি মানুষ নোবেল কমিটির কাছে আবেদন করেছে মিয়ানমারে চলমান রোহিঙ্গা সংকটে অং সান সু চি’র ভূমিকায় ক্ষুব্ধ হয়ে তাঁর নোবেল শান্তি পুরস্কার প্রত্যাহারের জন্যে ।

চেঞ্জ ডট অর্গ (change.org) পরিচালিত এই প্রচারণায় আজ (১২ সেপ্টেম্বর) এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত আবেদনকারীর সংখ্যা ছিলো চার লাখ ১৫ হাজারের বেশি। প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে পাঁচ লাখ আবেদনের একটি লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করা হয়েছে। এছাড়াও, আবেদন বার্তায় সংখ্যালঘু রোহিঙ্গাদের ওপর মিয়ানমার সেনাবাহিনী ও সরকারের অত্যাচার ও শরণার্থী হয়ে বিভিন্ন দেশে তাদের মানবেতর জীবন-যাপনের কথা উল্লেখ করা হয়।

আবেদনে সু চি’র ভূমিকার সমালোচনা করে বলা হয়, নিজের দেশে এমন মানবতা বিরোধী অপরাধ থামাতে মিয়ানমারে নেত্রী অং সান সু চি কার্যত কোনো পদক্ষেপ নেননি।

এদিকে, নোবেল কমিটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, পুরস্কারটি দেওয়া হয় একজন মানুষের পূর্ববর্তী কাজের ভিত্তিতে। কাউকে যখন এই পুরস্কার দেয়া হয়, তাকে আগের কাজের মূল্যায়নের ভিত্তিতেই দেয়া হয়। ১৯৯১ সালে অং সান সূ চিকে এই পুরস্কার দেয়া হয়েছিল মিয়ানমারে স্বাধীনতার জন্য সামরিক একনায়কত্বের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করার কারণে। যখন কাউকে নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য মনোনীত করা হয়, তখন এক বছর ধরে আমরা অনেক প্রার্থীকে জানার, বোঝার, বিশ্লেষণের চেষ্টা করি। এখন যারা পুরস্কার পেয়ে গেছেন, তাদেরকে একই রকমভাবে পর্যবেক্ষণ এবং বিশ্লেষণ করা কতটা কঠিন সেটা নিশ্চয়ই আপনার বুঝতে পারেন। সেটা আমাদের এখতিয়ার এবং ক্ষমতার বাইরে। পুরস্কার পাওয়ার পর কে কী করলো সেটি প্রতিষ্ঠানটির বিবেচ্য বিষয় নয়। তারা পুরস্কার ফিরিয়ে নিবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছে।

তথ্যসূত্র : বিবিসি বাংলা

মতামত.........