,

১শ’ টাকার জন্য যুবককে কুপিয়ে হত্যা মাধবদীতে, অন্তরালে মাদক ব্যবসা !

অন্তরালে মাদক ব্যবসার আধিপত্য বিস্তার, উৎকন্ঠায় রয়েছে এলাকার সাধারণ মানুষ, উত্তেজনা বিরাজ করছে এলাকায়
alamin reporterমো: আল আমিন, মাধবদী (নরসিংদী) প্রতিনিধি :

বড় ভাইয়ের কাছ থেকে দোকান বাকীর ১’শ টাকা পাওনার জের ধরে ছোট ভাই খোরশেদ (২৮) নামে এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষ। গতকাল ১৫ জুলাই শুক্রবার রাত আনুমানিক সাড়ে ৮টায় মাধবদী থানার নুরালাপুর ইউনিয়নের নওপাড়া গ্রামের জামাই বাজারে এ ঘটনাটি ঘটে।

খোরশেদ নওপাড়ার মোঠ বাড়ী গ্রামের শামসুল আলমের ছেলে। নিহত খোরশেদ স্থানীয় একটি টেক্সটাইল মিলের শ্রমিক। এ সময় হামলাকারীদের অস্ত্রের আঘাতে আরও ৫ ব্যক্তি মারাত্বক আহত হন।

প্রত্যক্ষদর্শীর বর্ণনায় জানা যায়, নিহতের বড় ভাই আব্দুল বাছেদ একই মহল্লার নাসিরের দোকান থেকে ক’দিন আগে ১শ’ টাকার সদাই বাকিতে নেন। নাসির বাকি টাকা চাওয়ায় বাছেদ গড়িমসি করতে থাকলে ঘটনার দিন বিকেলে খোরশেদ ওই দোকানে সদাই ক্রয় করতে গেলে নাসির তার বকেয়া টাকা উদ্ধার করতে খোরশেদের মোবাইল ফোন সেট আটক করে। খবর পেয়ে খোরশেদের চাচা ও প্রতিবেশীরা বিষয়টি মীমাংসা করতে গেলে উভয় পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে সংঘর্ষ শুরু হয়। এ সময় নাসির ও আলমের নেতৃত্বে তাদের পিতা কফিল উদ্দিন ও তুষার, রাব্বি সহ ৭-৮ জনের একদল সন্ত্রাসী দেশীয় ধারালো অস্ত্র সস্ত্র নিয়ে তাদের ওপর হামলা চালিয়ে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে। এতে ঘটনাস্থলেই ৫ জন মারাতœক গুরুতর আহত হয়। তাদের মধ্যে আশঙ্কাজনক অবস্থায় খোরশেদকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে সে রাতেই মারা যায়। অন্য আহতদের মাধবদীর বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

অপর দিকে একটি বিশ্বস্ত সুত্র সংবাদ সবসময়কে জানায় নিহত খোরশেদ, বাসেদ ও নাসির, আলম তারা সবাই মাধবদীর শীর্ষ সন্ত্রাসী আশিকের আত্বীয় স্বজন দোকান বাকির ঘটনা একটি আই ওয়াশ মাত্র, অন্তরালে রয়েছে মাদক ব্যবসা এই মাদক ব্যবসার আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করেই মুলত দু’টি গ্রুপের মধ্যে এ ঘটনার সুত্রপাত ঘটে।

মাধবদী থানার ওসি (ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) মুহাম্মদ ইলিয়াছ এবং মাধবদী থানার ওসি (তদন্ত) আবুল কালাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে। এ ঘটনায় পুরো এলকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। উভয় পক্ষ সন্ত্রাসী গ্রুপের লোক বিধায় আবারো সন্ত্রাসী কর্মকান্ড ঘটার আশঙ্কায় এলকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। উৎকন্ঠায় রয়েছে এলাকার সাধারণ মানুষ।

মতামত.........