,

সিসিক’র তিন গাড়ির যন্ত্রাংশ চুরি হয়নি বরং ডাম্পিং স্টেশনে ফেলা হয়েছে: মেয়র

সিলেট প্রতিনিধি :
সিলেট সিটি কর্পোরেশন(অস্থায়ী)ভবনের পাশ থেকে তিনটি গাড়ির যন্ত্রাংশ চুরি হয়নি বরং গাড়িগুলো ব্যবহার অনুপযোগী হওয়ায় পরিচ্ছন্নতা শাখার কর্মকর্তা কর্মচারীর এগুলো অন্যত্র সরিয়ে রাখার কথা থাকলেও তারা তা না করে ডাম্পিং স্টেশনে ফেলে আসেন। শনিবার বেলা সাড়ে ১১টায় নগর ভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এমনটাই জানিয়েছেন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।
তিনি আরো জানান, ‘নতুন কেনা গাড়ি ও যন্ত্রপাতি রাখার জন্য কার্যালয়ের সামনের জায়গা খালি করতে গিয়ে পরিচ্ছন্নতা শাখার কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা তিনটি গাড়ির অংশ বিশেষ ডাম্পিং স্টেশনে রেখে এসেছেন।’জানা গেছে, সিটি করপোরেশনের অস্থায়ী কার্যালয়ের (পীর হাবিবুর রহমান পাঠাগার) দক্ষিণ-পশ্চিম পাশে রাখা ৩টি অব্যবহৃত গাড়ি গত ২৬ সেপ্টম্বর গায়েব হয়ে যায়।
এ ঘটনায় গত ২৪ অক্টোবর কোতোয়ালি মডেল থানায় নিখোঁজ ডায়রি (নং-১৯৪৯) করেন সিটি কর্পোরেশনের পরিবহন শাখার উপ সহকারী প্রকৌশলী (যান্ত্রিক) জাবেরুল ইসলাম।
এ ব্যাপারে মেয়র আরিফ বলেন, ‘সিটি করপোরেশনের অব্যবহৃত তিনটি গাড়ির যন্ত্রাংশ পাওয়া যাচ্ছে না বলে যান্ত্রিক শাখার উপ সহকারী প্রকৌশলী জাবেরুল ইসলাম আমাকে জানান। পরে আমি তাকে কোতোয়ালি থানায় সাধারণ ডায়েরি করার নির্দেশ দেই।’ডাম্পিং স্টেশনে তিনটি গাড়ির যন্ত্রাংশ আছে কিনা-এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এটা দেখবে তদন্ত কমিটি।
এখানে কোন কোন গাড়ি আছে, আর কী ধরণের যন্ত্রাংশ রয়েছে। বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে খতিয়ে দেখার জন্য কাজ শুরু করেছে তদন্ত কমিটি। তাদের রিপোর্ট পাওয়ার পর পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এতে কারও সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেলে তাকে চাকরি থেকে অব্যাহতি দেওয়া হবে।

মতামত.........