,

সিলেটের এক ছবি নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় চলছে আলোচনা সমালোচনার ঝড়

হাফিজুল ইসলাম লস্কর, সিলেট:
একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। ভাইরাল হওয়ার সাথে সাথে ছবিটি নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোচনার সমালোচনার ঝড় উঠেছে। সেই ছবিটি এক আইডি থেকে আরেক আইডিতে শেয়াল হয়ে দ্রুত ছড়িয়ে পড়েছে সিলেটের সব ফেসবুক আইডিতে। কিন্তু ভাইরালকৃত ছবিটি নিয়ে বিরোধীদের মুখে ‘রা’ নেই। তারা মুখে কুলুপ এটেছে। আর এই ছবিটি হচ্ছে বিশ্বনাথের স্থগিত হওয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পংকি খানের। তিনি শনিবার সিলেটে সফররত আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে হাত মেলাচ্ছেন। আর এ সময় ক্যামেরাবন্দি হওয়া ছবিটি এখন সিলেটের রাজনৈতিক অঙ্গন ও আমজনতার চায়ের চাপে ঝড় তুলেছে।
অনেকেই ছবিটির সমালোচনা করছেন। আবার কেউ কেউ পংকি খানের রাজনৈতিক দূরদর্শীতার প্রশংসাও করছেন। সিলেটের বিশ্বনাথের আলোচিত আওয়ামী লীগ নেতা পংকি খানকে নিয়ে গত দুই মাস ধরে আলোচনা সমালোচনার অন্ত নেই। ‘বহিরাগত নেতা’ পংকি খান এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে দলীয় সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে বিশ্বনাথের কমিটি স্থগিত করা হয়েছিল।
কমিটি স্থগিত হওয়ার পর থেকে পংকিখান এখন পদবিহীন। এরপরও রাজনীতিতে পংকি খান সরব রয়েছেন। সিলেট-২ আসনের সাবেক এমপি ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরীর আস্থাভাজন পংকি খান। এক সময় তিনি বিশ্বনাথ উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। গুম হওয়া বিএনপি নেতা এম ইলিয়াস আলীর প্রিয়পাত্র ছিলেন তিনি।
কিন্তু ওয়ান-ইলেভেন থেকে ইলিয়াস আলী সঙ্গে পংকি খানের দূরত্ব তৈরি হয়। এবং শেষ মুহূর্তে পংকিখান বর্তমান সরকারের প্রথম টার্মে বিএনপির সঙ্গ ছেড়ে আওয়ামী লীগে যোগ দেন। আর পংকিখান বিশ্বনাথ আওয়ামী লীগে যোগ দেয়ার পর থেকে বিশ্বনাথ আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতা শফিকুর রহমান চৌধুরীর সঙ্গে অন্যান্য সিনিয়র নেতাদের দ্বন্দ্ব শুরু হয়। যে কারণে এখন শফিকুর রহমান চৌধুরী বিরোধী বলয়ে অবস্থান করছেন বিশ্বনাথ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মজম্মিল আলী, সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. ছয়ফুল হক, সাবেক চেয়ারম্যান মতচ্ছির আলী সহ সিনিয়র নেতারা।
এই দ্বন্দ্ব এখন সাপে-নেউলে। পংকি খানকে বহিরাগত উপাধী দিয়ে তারা যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী বলয়ে যোগ দিয়েছেন। এ কারণে বিশ্বনাথ আওয়ামী লীগের চলছে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ। পংকি খানের বিরুদ্ধে অভিযোগের বিষয়টি দলীয় ফোরামে আলোচিত হয় বলে জানিয়েছেন সিলেট আওয়ামী লীগের এক নেতা।
তিনি জানান, বিষয়টি দলের সভানেত্রীর নজরে যাওয়ার পরপরই প্রায় দুই মাস আগে স্থগিত করা হয় বিশ্বনাথের কমিটি। কমিটি স্থগিতের পর থেকে বিশ্বনাথ আওয়ামী লীগের বিরোধী বলয়ে উল্লাস চলছে। কিন্তু থেমে নেই পংকি খান। আগের চেয়ে আরো বেশি সক্রিয় হয়েছেন আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে। কেন্দ্রীয় নেতারা সিলেটে এলেই তিনি ছুটে আসেন। দেখা করেন তাদের সঙ্গে। আর এসব ছবি তুলে ফেসবুকে পোস্ট করেন তার সমর্থকরা।
গত শনিবার সিলেট সফরে আসেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। ওই দিন সকালে তিনি রেজিস্ট্রারি মাঠে সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন অভিযানের উদ্বোধন করেন। এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে যখন মঞ্চে বসা ছিলেন ওবায়দুল কাদের।
 তখন নেতাকর্মীদের ভিড় ঠেলে সেখানে ছুটে যান পংকি খান। হাত বাড়িয়ে দেন ওবায়দুল কাদেরের দিকে। ওবায়দুল কাদেরও তার দিকে হাত বাড়ান। দু’জন যখন করমর্দন করছিলেন তখন ছবি তোলা হয়। আর এই ছবিটি ফেসবুকে শেয়াল হওয়ায় পর থেকেই আলোচনা-সমালোচনা চলছে।
ছবিটি নিজের ফেসবুক আইডি থেকে শেয়ার করেছেন সিলেট-২ আসনের সাবেক এমপি শফিকুর রহমান চৌধুরীর একান্ত সহকারী যুবলীগ নেতা কবিরুল ইসলাম কবির। শেয়ার করা বেশ কয়েকটি ছবির একটিতে দেখা গেছে পংকি খান ওই সময় মঞ্চ দাঁড়িয়েও ছিলেন। সবচেয়ে বেশি সমালোচনা হচ্ছে বহিরাগতদের বিরুদ্ধে সবচেয়ে বেশি সোচ্চার আ:লীগের সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে পংকি খানের অন্তরঙ্গ হাত মেলানোর দৃশ্য ও ভাইরালকৃত ছবিটি নিয়ে। যা ঝড় তুলেছে আমজনতার চায়ের কাপে।

মতামত.........