,

সাফল্য অর্জন ও উন্নয়ন ভাবনা বিষয়ে লামায় সাংবাদিকদের সাথে তথ্য অফিসের প্রেস ব্রিফিং

বেলাল আহমদ,লামা (বান্দরবান)প্রতিনিধি: 
বান্দরবানের লামায় জেলা তথ্য অফিসের ব্যবস্থাপনায় ১৭ই ডিসেম্বর রবিবার সকাল ১১টায় বর্তমান সরকারের বিভিন্ন সেক্টরে সাফল্য অর্জন ও উন্নয়ন ভাবনা বিষয়ে উদ্ভুদ্ধকরণ এবং সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ বিষয়ে প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকদের সাথে প্রেস ব্রিফিং করেন সহকারী তথ্য অফিসার মো: রুহুল আমিন। সরকারের বিভিন্ন সেক্টরে উন্নয়ন কর্মকান্ডে প্রেস ব্রিফিং-এ বলা হয়, সরকার আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণে ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশে রুপান্তর করার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে।

সরকারের যেসব সেক্টরে উন্নয়ন সাধিত হয়েছে তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে, শিক্ষার হার বৃদ্ধির লক্ষ্যে বছরের প্রথমে ছাত্র-ছাত্রীর হাতে বই তুলে দেয়া, শিক্ষা উপবৃত্তি প্রদান, প্রাথমিক বিদ্যালয় সমুহ জাতীয় করণ ও মাদ্রাসাগুলোকে জাতীয় করণের প্রক্রিয়াধীন। এছাড়া হাসপাতাল সমুহে উন্নত চিকিৎসা প্রদান, তৃণমুলে সেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ইউনিয়ন পর্যায়ে কমিউিনিটি স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র চালু, কৃষি সেক্টরকে ঢেলে সাজানো, মানুষের মাতা পিছু আয় বৃদ্ধি, দরিদ্র সীমার নীচে বাস করা লোকের সংখ্যা কমানো, বিভিন্ন সাপোর্টের ফলে মানুষের গড় আয়ু বৃদ্ধি, শিশু ও মাতৃ মৃত্যুর হার কমানো, দেশে বৈদেশিক রেমিটেন্স বাড়িয়ে মুদ্রার রিজার্ভ বাড়ানো, বিদ্যুত উৎপাদনে ১৩,৫০০ মেগাওয়াটে উন্নীত করা, ইউনিয়ন সেবা কেন্দ্র থেকে গ্রামীণ জনগোষ্ঠির সেবা নিশ্চিত করা, বয়স্ক, বিধবা ও স্বামী পরিত্যাক্ত, দু:স্থ্য মহিলা, মুক্তিযোদ্ধা সম্মানী, অস্বচ্ছল ও প্রতিবন্ধী ভাতা প্রদান। প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের মাঝে উপ বৃত্তি প্রদান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে তাদের যাতায়াতের ব্যবস্থা করণ, ওয়াশ ব্লক করে দেয়া।

ডিজি এফ, ভিজিডি সুবিধা প্রদান, বাংলাদেশ নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ করা, সরকারী চাকরীর ক্ষেত্রে নারীদেরকে অগ্রাধিকার দেয়া ও নারী সু-রক্ষার জন্য বিভিন্ন আইন প্রণয়ন করা হয়েছে। এছাড়া রাস্তাঘাট ব্রিজ-কালভার্ট, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রম চলমান রয়েছে। প্রেস ব্রিফিং-এ আরো বলা হয়, ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে আলাদাভাবে গঠন করা হয়েছে তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক মন্ত্রণালয়। ২০২১ সালের মধ্যে সারা দেশকে ব্রডব্যান্ড কানেকশনের আওতায় আনার লক্ষমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। জনগনের দোরগোড়ায় সেবা পৌঁছে দিতে ২০১০ সাল থেকে দেশের সকল ইউনিয়নে একযোগে একটি প্রযু্ক্তি নির্ভর আধুনিক ডিজিটাল সেবা কেন্দ্র গঠন করা হয়েছে। এছাড়া ক্ষুদা ও দারিদ্রমুক্ত সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে প্রধান মন্ত্রীর বিশেষ উদ্যোগে ব্রান্ডিং বিষয়ক কার্যক্রম বিশেষ করে একটি বাড়ি-একটি খামার প্রকল্পের আওতায় দেশেরে ৮৫ হাজার গ্রামের অসংখ্য ছিন্নমুল মানুষ এর সুবিধা ভোগ করছে। পর্যায়ক্রমে এর প্রাপ্তি আরো সম্প্রসারিত করা হবে।

২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশে রুপান্তর করার লক্ষ্যে প্রধান মন্ত্রী ১০ টি বিষয়কে চিহ্নিত করে উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়নে প্রান্তিক জনগোষ্ঠিকে জাতীয় উন্নয়নে সম্পৃক্ত করণ, অবহিত ও উদ্ভুদ্ধ করার মূল লক্ষ্যেই তথ্য অফিস কর্তৃক আলোচনা সভা ও চলচিত্র প্রদর্শন করে যাচ্ছে। সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোস্তাফিজুর রহমান ভুইয়া ও লামা প্রেসক্লাব সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা প্রিয়দর্শী বডুয়া বক্তব্য দেন।প্রেস ব্রিফিংয়ে উপজেলার স্থানীয় প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

মতামত.........