,

শিল্পাঞ্চল মাধবদী প্রাণ ফিরে পেতে শুরু করেছে, ফিরে আসছে সেই চির চেনা রুপ

imagesমোঃ আল আমিন, মাধবদী (নরসিংদী) প্রতিনিধি ঃ

পবিত্র ঈদুল ফিতরের পর গত মঙ্গল বার থেকে শিল্পাঞ্চলখ্যাত মাধবদী থানার বিভিন্ন এলাকায় প্রাণ ফিরে পেতে শুরু করেছে, ফিরে পাচ্ছে তার আপন চেহারা, সেই চির চেনা রুপ। ঈদের দীর্ঘ ছুটির পর নারীর টানে বাড়ি ফেরা মানুষগুলো জীবনের তাগিদে ফিরে আসতে শুরু করেছে মাধবদী শহরের যার যার কর্মস্থলে। মিল-কারখানাসহ সরকারী-বেসরকারী অফিস, ব্যাংক, বীমা, দোকানপাট ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো ফিরতে শুরু করেছে স্বরুপে। নরসিংদীর মাধবদী শিল্পাঞ্চলের হাজার হাজার শ্রমজীবি মানুষের ঈদের ছুটির পর বাড়ি থেকে কর্মস্থলে ফেরা নিয়ে চরম বিড়ম্বনার মধ্যে পড়তে হচ্ছে।

বিগত সময়ে এ অঞ্চলের বিভিন্ন শিল্প কারখানার শ্রমিকরা জেলা ভিত্তিক গ্রুপ বেঁধে দূর পাল্লার বিভিন্ন রোডের বাস রিজার্ভ করে প্রতিটি গাড়ীতে ৬০ থেকে ১’শ জনের গ্রুপ বেধে নির্দিস্ট সময়ে মাধবদী এসে কাজে যোগদান করতো। কিন্তু এ বছর মাধবদীতে বিভিন্ন জেলা থেকে আসা শ্রমিকরা বৈরী আবহাওয়ার কারনে ও বিভিন্ন ভাবে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকার কারনে গ্রুপ করতে পারেনি তাই গাড়ি রিজার্ভ করা সম্ভব হয়নি বলে জানা গেছে। সে কারনে এখানো শিল্পাঞ্চলের হাজার হাজার শ্রমজীবি মানুষের ফেরা হয়নি কর্মস্থলে।

প্রাচ্যের ম্যানচেস্টার খ্যাত মাধবদীর বাবুরহাটের শিল্প কারখানাগুলোতে কাপড় উৎপাদন শুরু হয়েছে। তাতে এ অঞ্চলে যেন প্রাণ ফিরে আসতে শুরু করেছে। ফুটপাতেও বিভিন্ন পসরা নিয়ে বসেছেন হকাররা। মাধবদী পৌর শহরের ম্যানচেস্টার চত্তর, স্কুল সুপার মার্কেটের মোড়, আনন্দীর মোড়সহ বেশ ক’টি সড়কে আবারও দেখা গেছে সেই চিরচেনা যানজটের চিত্র। মাধবদী পৌর শহরের স্কুল-কলেজ সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি ছিলো চোখে পড়ার মতো। মার্কেট, শপিংমল গুলোতেও শুরু হচ্ছে বিকিকিনি। ১০ জুলাই ঈদুল ফিতরের সরকারী ছুটি শেষ হলেও মাধবদীতে পুরোদমে কর্মব্যস্ততা শুরু হতে আরো ১৫/২০ দিন সময় লেগে যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় ছুটি থাকায় এবং চাকরিজীবীদের অনেকেই বাড়তি ছুটি নেওয়ায় এমনটা হয়ে থাকে।

মাধবদীর আশপাশের বিভিন্ন এলাকাগুলোতে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় প্রায় সব ধরনের মিল কারখানা, শিল্প প্রতিষ্ঠান, অফিস ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা কর্মচারীদের ঈদের ছুটি কাটিয়ে কর্মস্থলে উপস্থিত হয়ে কাজ করতে দেখা যায়। গত১২ জুলাই মঙ্গলবার মাধবদী পৌরশহরের বাসস্ট্যান্ডে গিয়ে দেখা যায় ঢাকা সহ বিভিন্ন কর্মস্থলে যাওয়ার জন্য যানবাহনের জন্য অপেক্ষামান যাত্রীদের প্রচন্ড ভিড়। আর গনপরিবহন গুলোতে যাত্রীদের দাড়িয়ে এবং গাড়ির দরজায় ঝুলে যেতেও দেখা যায়। তবে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, দোকানপাট ও ফুটপাতের ব্যবসায়ীদের সাথে আলাপ করে জানা যায় একদিকে বৃষ্টি অন্য দিকে ঈদের রেশ এখনো কাটিয়ে উঠেনি মাধবদীবাসী।

মাধবদীর সোনার বাংলা মার্কেটের সামনের ফুটপাতের ব্যবসায়ী সামসুল হক বলেন আমার বাড়ি চাঁদপুরে আমি বাড়ি থেকে আরো তিন দিন আগে ফিরেছি গতকাল সোমবার মাধবদীতে হাঠবার ছিল বলে দোকান খুলে ছিলাম কিন্তু লোকজন কম থাকায় ও বৃস্টির কারনে বেচা কেনা তেমন হয়নি। বিশেষ করে মাধবদী শিল্পাঞ্চল থেকে লক্ষ লক্ষ শ্রমিক কর্মচারী কর্মকর্তা ঈদের ছুটিতে নিজ নিজ দেশের বাড়িতে চলে যাওয়ায় কোলাহল মুখর এলাকায় এখনো নিস্তব্ধতা বিরাজ করছে। বিভিন্ন জেলা থেকে শ্রমজীবী মানুষগুলো আসতে শুরু করলেও আগামী এক সপ্তাহকাল এ শিল্প এলাকার নীরবতা থকবে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

2 comments

  1. ধন্যবাদ একটি সুন্দর সংবাদ প্রকাশের জন্য

  2. সত্যিই অসাধারণ লাগলো নিউজ টা।।

মতামত.........