,

যুক্তরাজ্যে অবস্থানের পর দেশে ফিরলেন খালেদা জিয়া

ফাইল ফটো ।

নিজস্ব প্রতিবেদক:

তিন মাস যুক্তরাজ্যে অবস্থানের পর গ্রেপ্তারি পরোয়ানা মাথায় নিয়ে দেশে ফিরেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। আজ বুধবার বিকেল পাঁচটার দিকে তিনি ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান।

এর আগে মঙ্গলবার স্থানীয় সময় রাত ৯টা ৫০ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় রাত ২টা ৫০ মিনিট) হিথ্রো বিমানবন্দর থেকে এমিরেটস এয়ারলাইন্সের বিমানের একটি ফ্লাইটে তিনি লন্ডন ত্যাগ করেন। এ সময় ছেলে তারেক রহমান, তার স্ত্রী জোবায়দা রহমানসহ যুক্তরাজ্য বিএনপির নেতাকর্মীরা বিমানবন্দরে তাকে বিদায় জানান।

গত ১৫ই জুলাই চিকিৎসার জন্য যুক্তরাজ্যে যান খালেদা জিয়া। তিনি দেশে ফিরছেন এমন এক সময়ে যখন কুমিল্লায় একটি এবং ঢাকায় দুটি মামলায় তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি রয়েছে।

এদিকে দলীয় প্রধানকে স্বাগত জানাতে দলের শীর্ষ নেতা থেকে শুরু করে ঢাকা ও এর আশপাশ এলাকার নেতাকর্মীরা বিমানবন্দর আশপাশ এলাকায় জড়ো হয়েছেন।

বিভিন্ন ধরনের প্ল্যাকাড, ব্যানার, ফেস্টুন হাতে স্লোগানে স্নোগানে নেতাকর্মীরা মাতিয়ে তুলছেন। বিএনপি চেয়ারপারসনকে একনজর দেখতে সাধারণ জনতাও অংশ নেন বিএনপির এ অভ্যর্থনায়।

এদিকে দুপুর থেকেই বিমানবন্দর ও এর আশপাশের এলাকায় নিরাপত্তাব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। বিমানবন্দরে প্রবেশমুখে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিপুলসংখ্যক সদস্য মোতায়েন করা হয়।

বিমানবন্দরের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) সদস্য সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে। বিমানবন্দর সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক রাখতে ট্রাফিক পুলিশের সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে।

শারীরীক চিকিৎসার জন্য গত ১৫ জুলাই লন্ডনে যান খালেদা জিয়া, সেখানে বড় ছেলে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বাসায় ওঠেন। তারেক রহমান স্ত্রী-কন্যা এবং ছোট ছেলে প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী-কন্যাদের সঙ্গে নিয়ে ঈদ উদযাপন করেন খালেদা জিয়া। তবে লন্ডন কোনো দলীয় কর্মসূচিতে অংশ নেননি তিনি।

গত ৮ সেপ্টেম্বর লন্ডনে মুরফিল্ড হাসপাতালে খালেদা জিয়ার চোখের সফর অস্ত্রোপচার হয়। এছাড়া তিনি পায়েরও চিকিৎসা নেন ।

মতামত.........