1457679984রাজীব চক্রবর্তী, চট্টগ্রাম প্রতিনিধি :

বন্দর নগরীর প্রকাশ্যে ‘মাদক’ বিক্রির হাট হিসেবে পরিচিত চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন এলাকার বরিশাল কলোনিতে ‘মাদক বিক্রির নিয়ন্ত্রণ’ এর জেরে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

মঙ্গলবার (২ আগস্ট) সংঘর্ষের জেরে নগরীর আইস ফ্যাক্টরি রোড এলাকায় সড়ক অবরোধ করে স্থানীয় একদল নারী। পরবর্তীতে পুলিশ এসে ধাওয়া দিয়ে অবরোধকারি দু’পক্ষকেই সরিয়ে দিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ৫ জুলাই মাদক বিক্রেতাদের দ্বন্দের জেরে মো. শফিক নামে এক যুবক খুন হয়। মূলত এ ঘটনার জেরে সকালে মাদক ব্যবসায়ী রুহুল ও মোক্তারের সাথে কামাল গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের সূত্রপাত ঘটে পরবর্তীতে দু’গ্রুপের ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, মঙ্গলবার সকালে র‌্যাবের একটি দল স্টেশন কলোনি এলাকা থেকে রুহুল-মোক্তারের পক্ষের দুই জনকে আটক করে। এরপরই রুহুল-মোক্তারের পক্ষের লোকজন কামালের পক্ষের লোকজনদের ধাওয়া দেয়; অপর পক্ষও তাদের ধাওয়া দেয়। এসময় উভয় পক্ষের লোকজনজনকে ধারালো অস্ত্র ও আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ায় অংশ নিতে দেখা গেছে এবং বেশ কয়েকটি ঘরের দরজা ভাংচুর করে তারা। তাদের অভিযোগ, গত ৫ জুলাই শফিকের ‘হত্যাকারী’ কামালের লোকজনই তাদের গ্রেপ্তার করিয়েছে,অবশ্য কাউকে গ্রেপ্তার করার কথা অস্বীকার করেছেন র‌্যাব-৭ এর স্টাফ অফিসার চন্দন দেবনাথ। সকালে র‌্যাবের কোনো দল স্টেশন কলোনি এলাকায় অভিযানে যায়নি বলেও তার দাবি।

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, নগরীর স্টেশনের বরিশাল কলোনির ধোপার মাঠ এলাকায় কামাল, রুহুল আমিন ও মোক্তার একত্রিত হয়ে মাদক ব্যবসার নিয়ন্ত্রণ করত। সম্প্রতি আধিপত্য বিস্তার নিয়ে কামালের সঙ্গে মোক্তার ও রুহুল আমিনের বিরোধ হয়,পুলিশের হাতে গ্রেফতারকৃত কামাল জামিনে ছাড়া পাওয়ার পর গত ৫ জুলাই স্টেশনের বরিশাল কলোনি এলাকায় গেলে শফি খুন হয় বলে স্থানীয়দের অভিযোগে জানা গেছে,এ ঘটনার জেরে উক্ত এলাকায় নিয়মিত ঘরবাড়ি ভাঙ্গচুর ও ছিনতাইসহ নানা অপ্রিতীকর ঘটনা ঘটেছে বলেও জানান স্থানীয় বাসীন্দারা।

কোতোয়ালি থানার ওসি (তদন্ত) নুর আহাম্মদ সংবাদ সবসময়কে বলেন “সকাল থেকে দুই গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছিলো। পরবর্তীতে আমাদের থানার ফোর্স গিয়ে ধাওয়া দিয়ে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারীদের সরিয়ে দিয়েছি,তিনি জানান, স্থানীয় মহিলারা আইস ফ্যাক্টরি রোড এলাকায় অবস্থান নিয়ে ব্যারিকেড দিলে তাদের বুঝিয়ে রাস্তা থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে, এসময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে পরিত্যাক্ত অবস্থায় দুটি রাম দা উদ্বার করেছে,ওসি (তদন্ত) নুর আহাম্মদ আরো বলেন, “তবে র‌্যাব কাউকে আটক করেছে কিনা এ ব্যাপারে আমরা নিশ্চিত না।

মাদক বিক্রির নিয়ন্ত্রণ নিয়ে চট্টগ্রামের বরিশাল কলোনীতে তুমুল সংঘর্ষ

মতামত.........