,

ভোলায় ছাত্রলীগ ও বাস শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষে আহত ১২

Bhola Picএস আই মুকুল, ভোলা প্রতিনিধি :

ভোলার চরফ্যাশনে সামান্য ঘটনাকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগ ও বাস শ্রমিকদের মধ্যে সংর্ঘষের ঘটনা ঘটে। এতে ১১ টি যাত্রীবাহি বাস ভাংচুর সহ প্রায় ১২ জন আহত হয়েছে। ২৫শে জুলাই দুপুর দেড় টার দিকে পৌর শহরের শরীফ পাড়া বাস স্ট্যান্ড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে চরফ্যাশন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, চরফ্যাশন কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি শিপন মোটরসাইকেল নিয়ে আজ দুপুর দেড়টার দিকে চরফ্যাশন উপজেলা সদর দিয়ে যাচ্ছিলেন। এ সময় একই সড়ক দিয়ে প্রিন্স পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস যাওয়ার সময় বাসের চাকা কাদাপানিতে পড়ে, সেই পানি ছিটকে গিয়ে শিপনের জামা কাপড় নষ্ট হয়ে যায়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ছাত্রলীগ নেতা শিপন যাত্রীবাহী বাসটি থামিয়ে বাসের চালক সবুজকে মারধর করেন। এর জের ধরে বাস শ্রমিকরা জোট বেঁধে ছাত্রলীগ নেতাকে ধরে এনে বাস টার্মিনালে আটকে রাখে।
বাস মালিক সমিতির পক্ষে বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি ও বাস মালিক সমিতির চরফ্যাশন সভাপতি প্রভাষক মনিরউদ্দিন চাষী বলেন, দুপুরের দিকে চরফ্যাশন কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি মো. শিপন রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিল। ওই সময় প্রিন্স অব গজারিয়া পরিবহন নামে একটি বাস আসার সময় তার গায়ে কাদা ছিটকা লাগে। এর জের হিসেবে ছাত্রলীগ কর্মী সমর্থকরা এলোপাতাড়ি হামলা চালিয়ে টার্মিনালে থাকা ১১টি বাস ভাংচুর করে । এ সময় ১২ জন বাস শ্রমিককে পিটিয়ে আহত করা হয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি ।
চরফ্যাশন সরকারী কলেজ ছাত্রীগের সভাপতি শিপন বলেন, গাড়িতে হাফ ভাড়া দেওয়াকে কেন্দ্র করে একাদশ শ্রেণির প্রথম বর্ষের আবু তাহের নামের এক কলেজ ছাত্রকে মারধর করে গাড়ির স্টাফরা। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সাধারণ ছাত্ররা ভাংচুর চালায়।
এ ব্যাপারে চরফ্যাশন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এনামূল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ নিয়ে ছাত্রলীগ ও বাস পরিবহন শ্রমিকদের মধ্যে সংর্ঘষের ঘটনায় ১১ টি বাস ভাংচার করা হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

মতামত.........