,

ভোলায় চরফ্যাশন কলেজে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপে সংর্ঘষ, আহত ১৫

Bhola Chatroligএস আই মুকুল, ভোলা প্রতিনিধি:

ভোলার জেলার সরকারি চরফ্যাশন কলেজে কমিটি গঠনের জের ও আধিপত্ত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে দফায় দফায় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষে কম পক্ষে ১৫ জন আহত হয়েছে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় একজনকে শেবাচিম হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বাকিদের স্থানীয় বিভিন্ন হাসপাতাল ও ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। ক্যাম্পাসে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়।
মঙ্গলবার দুপুর এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এদিকে ক্যাম্পাস দুই গ্রুপের অস্ত্র নিয়ে মহড়ায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পুলিশ বেশ কিছু দেশিয় অস্ত্র উদ্ধার করেছে।
সংঘর্ষের বিষয়ে কলেজ অধ্যক্ষ কায়সার আহমেদ দুলাল সংবাদ সবসময়কে জানান, এটা কলেজের কোন বিষয় নয়। ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের বিষয় ছিল। তবে এদের এমন সংঘাতময় পরিস্থিতির জন্য কলেজের স্বাভাবিক পরিস্থিতি বিঘ্ন ঘটে। এজন্য একটি তদন্ত টিম গঠন করা হয়েছে। সাধারণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।
চরফ্যাশন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এনামুল হক সংবাদ সবসময়কে জানান, আধিপত্ত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষের সূত্রপাত। পুলিশের অভিযানে ক্যাম্পাস এলাকা থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় ৭টি কিরিস (পাতলা রামদা), বেশ কিছু লোহার রড উদ্ধার করা হয়। বিকেল ৫টা পর্যন্ত কেউ আটক করা হয়নি।
কলেজ সূত্রে জানায় গত ৬ ডিসেম্বর সম্মেলন ও গোপন ব্যালটের ভোটে কলেজ ছাত্র লীগের কমিটি গঠন হয়। ওই সময় শিপন সভাপতি. আমিনুল সম্পাদক নির্বাচিত হয়। এরা হচ্ছে সোলায়মান গ্রুপের।
মঙ্গলবার রাফি ও ছোটন বহিরাগত ছাত্রদের নিয়ে ক্যাম্পাসে আসে এমন প্রচারণা চালায়। এসময় শিপন তাদের বাধা দেয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র তাদের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। আহতদের মধ্যে হাসপাতালে চিকিৎসাধীনরা হচ্ছে নাহিদ, জোবায়ের, মনির, রাকিব, জোবার হোসেন।
এদিকে সংঘর্ষে দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র নাঈমকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় বরিশালে শেরে ই বাংলা মেডিকেল কলেজ এর হাসপাতালে পাঠানো হয়। উক্ত ঘটনাকে কেন্দ্র করে বড় ধরনের সংঘর্ষের আশঙ্ক করছে শিক্ষক শিক্ষার্থীরা।

মতামত.........