,

ভাগ্যের জোরে খৈয়াছরা ঝর্ণার ৫শ ফুট থেকে পড়েও বেঁচে গেলেন ২ পর্যটক

120140831173142রাজিব চক্রবর্তী, চট্টগ্রাম প্রতিনিধি :

চট্টগ্রাসের মিরসরাই উপজেলার ১২ নম্বর খৈয়াছড়া ইউনিয়নের খৈয়াছরা ঝর্ণার প্রায় ৫০০ ফুট উঁচু থেকে পড়েও দুই পর্যটক আহত হলেও প্রাণে বেঁচে গেচেন। এদের মধ্যে ঢাকার মীরপুর এলাকার বাসিন্দা ওয়াসিম আকবর (৩০) এর অবস্থা গুরুতর।

শুক্রবার দুপুরে খৈয়াছরা ঝর্ণার পঞ্চম ধাপ এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে মিরসরাই ফায়ার সার্ভিস সিভিল ডিফেন্সের কর্মীরা আহত পর্যটকদের বিকাল সাড়ে ৫ টা নাগাদ উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। গুরুতর আহত ওয়াসিম আকবরের কোমর ভেঙ্গে গেছে। তাকে প্রথমে মিরসরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স মস্তাননগর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি ঘটলে আজ শুক্রবার রাতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। অন্যজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা প্রতিবেদককে জানান, প্রায় দুই হাজার ফুট উঁচু খৈয়াছরা ঝর্ণার আটটি স্তরের ৫ম স্তরে ওঠার পর মিরসরাইয়ের স্থানীয় এক পর্যটক পা পিছলে পড়ে যাওয়ার সময় তাকে ধরতে যায় ওয়াসিম আকবর। ওই পর্যটক সামান্য আঘাতপ্রাপ্ত হলেও ওয়াসিম পাহাড়ের নিচে পড়ে যায়। গহীন জঙ্গল হওয়ায় স্থানীয় লোকজন অনেক চেষ্টা করেও ওয়াসিমকে উদ্ধার করতে পারছিল না। পরবর্তীতে সীতাকুন্ড সার্কেল এএসপি মাহবুবুর রহমানের নেতৃত্বে মিরসরাই থানা পুলিশ ও মিরসরাই ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা বিকালে ওয়াসিমকে উদ্ধার করে মিরসরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। অবস্থার অবনতি হলে তাকে চমেকে পাঠানো হয়।

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক থেকে ৪ কিলোমিটার আগে দুর্গম পাহাড়ি পথ হওয়ায় আহত পর্যটকদের উদ্ধার করতে বেশ বেগ পেতে হয়। আহত অপর পর্যটকের নাম পরিচয় জানা যায়নি। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সীতাকুন্ড সার্কেল এএসপি মাহবুবুর রহমান সংবাদ সবসময়কে জানান, আহত এক পর্যটককে চিকিৎসা দেয়া হযেছে।

মতামত.........