,

বিদিপ্তাকে ঢাকায় পাঠিয়ে চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক

কামরুল হাসান, ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধিঃ

এবার হাইড্রোসেফালাসে আক্রান্ত ঠাকুরগাঁওয়ের ১৫ মাস বয়সী শিশু বিদিপ্তাকে ঢাকায় পাঠিয়ে চিকিৎসা করানোর দায়িত্ব নিয়েছেন ঠাকুরগাঁওয়ের জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল।

সম্প্রতি সন্তানের নির্যাতনের শিকার শতবর্ষী ঠাকুরগাঁওয়ের এক বৃদ্ধাকে কোলে করে অ্যাম্বুলেন্সে তুলে হাসপাতালে এনে ভর্তি করেন ঠাকুরগাঁওয়ের জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল।

অন্যদিকে, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের উৎসাহিত করতে নিজেই মাঠে নেমে রোপা রোপন করাসহ নানা মহতি কাজে অংশগ্রহণ করে নজরে আসেন সারা দেশবাসীর। আর সেই কর্মকান্ডের ছবিসহ সংবাদ বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ পেলে দেশব্যাপী ব্যাপক প্রশংসিত হন তিনি।

তারই ধারাবাহিকতায় আবারো বুধবার হাইড্রোসেফালাসে আক্রান্ত শিশু বিদিপ্তাকে নিয়ে ফেসবুকে লাইভ করেন এই প্রতিবেদক। বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে নজরে আনেন জেলা প্রশাসকের। এরপর তিনি এই প্রতিবেদককে শিশুটির চিকিৎসা করানোর আশ্বাস দেন।


এদিকে বৃহস্পতিবার সকালে শিশু বিদিপ্তাকে নিয়ে তার বাবা খোকন ও মা মাধবী জেলা প্রশাসকের সঙ্গে দেখা করেন। এসময় জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল বলেন, যত দ্রুত সম্ভব বিদিপ্তাকে ঢাকায় পাঠানো হবে। ঢাকায় আমার বন্ধু নিউরো সার্জন ডাক্তার জাহিদের সঙ্গে তার চিকিৎসার বিষয়ে কথা হয়েছে।তিনি সার্বিক ব্যবস্থা করে দেবেন।

তিনি আরো বলেন, আমরা খুব চেষ্টা করব ঈদের ছুটি শেষে আগামী ১০ সেপ্টেম্বর বিদিপ্তাকে ঢাকায় পাঠানোর। এই সময়ের মধ্যে তার পরিবারের হাতে চিকিৎসা বাবদ ৫০ হাজার টাকা আমরা দিয়ে দেব। বিদিপ্তাকে সুস্থ করতে জেলা প্রশাসন থেকে সব ধরনের সহযোগিতা আমরা করব।

প্রসঙ্গত, বিদিপ্তা ঠাকুরগাঁও শহরের জমিদারপাড়া এলাকার খোকন মন্ডলের মেয়ে। তার বাবা খোকন মন্ডল শহরের একটি লাইব্রেরিতে মাত্র ৬ হাজার টাকা বেতনে চাকরি করেন। টাকার অভাবে এতদিন বিদিপ্তাকে শুধুমাত্র হোমিও চিকিৎসা করিয়েছেন খোকন মন্ডল।

খোকন মন্ডল জানান, তিন মাস আগেও মাথাটি ছোট ছিল বিদিপ্তার। হঠাৎ করেই এত বড় হয়ে গেল। তবে জন্মের সময়ই শিশু চিকিৎসক সাজ্জাদ হায়দার শাহীন বলেছিলেন দ্রুত ঢাকা নিয়ে যেতে। কিন্তু আমার কাছে ঢাকা নিয়ে যাওয়ার মতো গাড়ি ভাড়াও ছিল না। তাই নিয়ে যেতে পারিনি। তখনই চিকিৎসা করাতে পারলে হয়তো সুস্থ হয়ে যেত আমার মেয়ে।

মতামত.........