,

বাঁশখালীতে এ্যামভিশনের ঈদ পুণর্মিলনী ও কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা অনুষ্ঠান সম্পন্ন

মুহাম্মদ মিজান বিন তাহের, বাঁশখালী প্রতিনিধি:

চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার কৃতি ছাত্র ছাত্রীদের সমন্ববয়ে গঠিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত  ছাত্রদের শিক্ষামূলক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এ্যামভিশন এর উদ্দ্যোগে বাঁশখালী পৌরসভাস্হ জলদী গ্রীন পার্ক কমিউনিটি সেন্টারে ৪ঠা সেপ্টেম্বর সোমবার বিকালে ৫ ঘটিকার সময় ঈদ পুনমির্লনী ও কৃতি শিক্ষাথী সংবর্ধনা অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়।

সংগঠনের সভাপতি মোঃ আনোয়ার হোসাইনের সঞ্চালনায় ও এস এম শওকতুল ইসলাম রেফায়ীর  সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পানি ও অর্থসম্পদ মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্হায়ী কমিটির সদস্য (চট্টগ্রাম-১৬) ববাঁশখালী আসনের সাংসদ আলহাজ্ব মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী।  বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজ্বী চাহেল তস্তুরী । সংবর্ধিত অতিথি হিসেবে উপস্হিত ছিলেন বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাহী সদস্য এডভোকেট কুমার দেবু দে।

অনুষ্টানে বক্তব্য রাখেন, রায়হান সোবহান, রকিবুল হক সায়েম,মুহাঃ নাজিম উদ্দীন, জাকের হোসাইন, ইমতিয়াজ ছোটন, নেজাম উদ্দীন।

অনুষ্টানে উপস্থিত ছিলেন বাঁশখালী থানা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক বাবু শ্যামল কান্তি দাশ, চাম্বল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান যুবলীগ নেতা মুজিবুল হক সিকদার, বাঁশখালী পৌরসভা আওয়ামীলীগের যুগ্ন আহবায়ক বাবু নীল কন্ঠ দাশ প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি সাংসদ মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী  বলেন, শিক্ষা জাতির মেরুদন্ড, শিক্ষা ছাড়া কোন জাতি উন্নতি করতে পারে না। তাই গ্রাম-গঞ্জে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দেওয়া জন্য দেশরত্ন বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা সব চেয়ে বেশী শিক্ষা ক্ষেত্রে উন্নয়নমূলক কাজ করে যাচ্ছে।তোমরাই আগামী দিনের ভবিষৎ।জাতিকে সুশিক্ষায় শিক্ষত করে দেশ কে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবা। বর্তমান প্রজন্মকে সঠিক ইতিহাস জানতে হবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী হয়ে জাতি গঠনে ভুমিকা রাখতে হবে।

আমরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রুপকল্প ২০২১ পূরনে তৃনমূলের নেতাকর্মীদের এক কাতারে কাজ করতে হবে।বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন সূখী সমৃদ্ধ জাতি গঠন তথা অবহেলিত বাঁশখালীর উন্নয়নে সকল ভেদাভেদ ভুলে সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার আহবান জানান। তিনি জাতির জনকের এই প্রিয় ভুমিকে বিশ্বের দরবারে একটি সম্মানের আসনে অধিষ্টিত করেছেন। জাতির জনক স্বাধীনতা এনেছেন। এখন তাঁর সুযোগ্য মেয়ে বাংলাদেশকে দিন দিন সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। তারি ধারবাহিকতায় বাংলাদেশকে  সোনার বাংলা হিসেবে উপহার দিতে আগামীতে আবারো পুনরায় শেখ হাসিনার সরকার গঠন করার সবার সহযোগীতা কামনা করেন।

এ পর্যন্ত সংগঠনটি প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরওবিভিন্ন স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসার ছাত্র-ছাত্রীদের মেধাবৃত্তি প্রদান করেন। প্রায় শতাধিক মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে ক্রেস্ট, ব্যাগ, প্রাইজবন্ড ও সনদপত্র প্রদান করেন।

মতামত.........