,

প্রতারণার মাধ্যমে চিকিৎসা প্রদান অবশেষে ভ্রাম্যমান আদালতের হাতে আটক

kobir-1446135080-df4a829_xlargeরাজীব চক্রবর্তী, চট্টগ্রাম :

বোয়ালখালী উপজেলা সদরে খান ডেন্টাল কেয়ার নামের একটি চেম্বার খুলে প্রাইভেট চিকিৎসা দিয়ে আসছেন এইচএসসি পাশ করা রেজাউল করিম (২৫)।
তিনি চেম্বারের বাইরে ডা. হাবিবুর রহমান নামের চিকিৎসকের সাইন বোর্ড টাঙালেও ভেতরে রেজাউল চিকিৎসা দেন বলে জানিয়ে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীরা।
 
নোয়াখালী জেলার ফকির উপজেলার মৃত হাবিবুল্লাহ’র ছেলে তিনি।
দীর্ঘদিন রোগীদের সাথে এ ধরণের প্রতারণা করে আসলেও বুধবার (২৯জুন) বিকেল ৪টার দিকে চেম্বারে হানা দেয় উপজেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত। এক যুবতীকে ডেন্টাল চিকিৎসা দেয়ার সময় হাতে নাতে ধরে ভ্রাম্যমাণ আদালত।
 
প্রতারণা করবে না মর্মে অঙ্গীকার করে অপরাধ স্বীকার করায় মেডিক্যাল প্যাকটিস এবং বেসরকারি ক্লিনিক ও ল্যাবরেটরী (নিংন্ত্রণ ) অধ্যাদেশ ১৯৮২ এর ১৩/২ ধারায় তাকে ২ মাসের সশ্রম কারাদন্ড দেয় ভ্রাম্যমাণ আদালত। একই আইনে দি এভারগ্রীণ ডায়াগনষ্টিক সেন্টারের মালিক সাগর কান্তি মল্লিক (৫৫) কে ৫দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেয়। তিনি পটিয়া উপজেলার অলিহাট এলাকার মৃত গোপাল চন্দ্র মল্লিকের ছেলে।
 
এছাড়া রওশন হেলথ সেন্টারকে ৫হাজার টাকা, রোজ ফার্মেসীকে ৫হাজার টাকা, গ্রামীণ ডায়ানস্টিক সেন্টারকে ১০হাজার টাকা ও এভারগ্রীণ ডায়াগনষ্টিক সেন্টারের ডেন্টিস টেকনিশিয়ান জালাল উদ্দীনকে ১০হাজার টাকা, মোটরযান আইনে সিএনজি টেক্সী চালককে ৫শত টাকা ও স্থানীয় সরকার ভূমি পুনরুদ্ধার আইনে এন জামান হোটেলকে ৫হাজার টাকা জরিমানা করে আদালত।
 
বুধবার বিকেলে উপজেলা সদরে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন বোয়ালখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নিবার্হী ম্যাজিষ্ট্রেট কাজী মাহবুবুল আলম।

মতামত.........