,

প্রকাশ্যে দিন দুপুরে ছিনতাইকালে নরসিংদীতে আটক-৭

মাধবদী (নরসিংদী) প্রতিনিধি:

প্রকাশ্যে দিন দুপুর বেলা ছিনতাই করতে গিয়ে জনতার হাতে গণধোলাই খেল ৭ ছিনতাইকারী। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার দুপুরে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের শিবপুর উপজেলাধীন শাষপুর শহীদ মিনার এলাকায়।

৭ছিনতাইকারীরা হলো ইমন (২০), নিশাত (১৯), জনি (১৮), জিহাদ (২৫), সৌরব (১৮), প্রবাদ দাস (২৪) ও শামীর হোসেন (১৯) নামে । জনতা তাদেরকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

গ্রেফতারকৃত ছিনতাইকারী ইমন নরসিংদী শহরের বৌয়াকুড় মহল্লার মৃত মুসলেমের পুত্র, নিশাত টিক্কার পুত্র, জনি, রজব মিয়ার পুত্র, জিহাদ জমির আলী পুত্র, সৌরভের পিতার নাম আফজাল, প্রবাদ দাসের পিতার নাম হরলাল দাস এবং সামিরের পিতার নাম আব্দুর রাজ্জাক বলে পুলিশ জানিয়েছে।

জানা গেছে, রায়পুরা উপজেলার পিরিজকান্দী গ্রামের সুলতান উদ্দিনের পুত্র রুবেল বুধবার সকালে নরসিংদী শহরে বৌয়াকুড় মহল্লার হযরত আলী মুন্সীর বাড়ীর একটি বিকাশ কেন্দ্র থেকে ৩ লক্ষ টাকা উঠিয়ে বাড়ীর উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেয়। এসময় বৌয়াকুড় মহল্লার ছিনতাইকারীরা রুবেলের পিছু নেয়। রুবেল ভেলানগর গিয়ে একটি বাসে উঠলে ছিনতাইকারীরা একই বাসে চেপে বসে। বাসটি শিবপুর উপজেলার শাষপুর শহীদ মিনার এলাকায় পৌছলে ছিনতাইকারীরা রুবেলকে জোরপূর্বক বাস থেকে নামিয়ে তার নিকট থাকা ৩ লাখ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এসময় রুবেল চিৎকার করতে থাকলে আশে পাশের লোকজন দৌড়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় এবং ঘটনা শুনে ৭ ছিনতাইকারীকে ধরে ফেলে। এরপর উপস্থিত জনতা এদেরকে গণপিটুনি দিয়ে থানায় খবর দেয়। এসময় শিবপুর থানা পুলিশের এসআই তাহের পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ছিনতাইকারীদেরকে প্রথমে থানা পরে তাদেরকে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে নিয়ে যায়।

সেখান থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাদেরকে পূনরায় থানায় নিয়ে যায়। এব্যাপারে রুবেল বাদী হয়ে শিবপুর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।

মতামত.........