,

নাঙ্গলকোটে নিখোঁজের ৫দিন পর যুবকের লাশ উদ্ধার

মো. আরিফুর রহমান মজুমদার, কুমিল্লা প্রতিনিধি-

কুমিল্লা নাঙ্গলকোট উপজেলায় নিখোঁজের ৫দিন পর যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে উপজেলার ছুপুয়া গ্রামের আমেরিকা প্রবাসী রফিক উদ্দিনের বাড়ির সীমান প্রাচীরের ভিতরে ১টি ডোবার পাড়ে মাটি চাপা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। নিহত মোঃ খোরশদ আলম নাঙ্গলকোট উপজেলার ছুপুয়া গ্রামের মৃত. ছেরাজুল হকের ছেলে।

নাঙ্গলকোট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আইয়ুব আলী জানান, গত ৩ নভেম্বর বৃহস্পতিবার ভোরে ফজরের নামাজ পড়তে গিয়ে খোরশেদ আলম আর বাড়িতে ফিরে আসেনি। নিখোঁজের ৪ দিন পর সোমবার (৬ নভেম্বর) খোরশেদ আলমের মেয়ে মোরশিদা বেগম নাঙ্গলকোট থানায় সাধারণ ডাইরি (জিডি) করে । মঙ্গলবার সকালে ছুপুয়া গ্রামে নিখোঁজ খোরশেদ আলমের পাশ্ববর্তী বাড়ি আমেরিকা প্রবাসী রফিকউদ্দিনের বাড়ির সীমানা প্রাচীরের ভিতরে একটি ডোবার পাড়ে মাটি চাপা অবস্থায় লাশের সন্ধান পাওয়া যায়। রফিক উদ্দিনের বাড়ির সবাই প্রবাসে থাকায় বাড়িটি প্রায় পরিত্যাক্ত। বাড়িটি চারদিকে দেয়াল ছিল। বাড়িটি দেখাশুনার জন্য এক জন কেয়ারটেকার রয়েছে। সকালে সে পুকুর পাড়ে পঁচা গন্ধ পেয়ে খোঁজ করে দেখে লাশের হাতের কিছু অংশ দেখা যাচ্ছে। তাৎক্ষণিকভাবে সে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের বিষয়টি জানায় ।

পরবর্তীতে পুলিশ ঘটনাস্থল গিয়ে মরদেহ উত্তোলন করে। ধারণা করা হচ্ছে পার্শ্ব দেয়ালের নিচে গর্ত করে হত্যাকারীরা প্রবাসীর বাড়িতে প্রবেশ করে খোরশেদ আলমকে মাটি চাপা দেয়।

তিনি আরো জানান, এ ঘটনা নিহত খোরশেদ আলমের স্ত্রী বাদল বেগম ও তার ছেলে ইসরাফিলকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছে। মরদেহের ময়নাতদন্তের জন্য কুমেক হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

মতামত.........