কামরুল হাসান, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি-
দীর্ঘ পাঁচ বছর ধরে অন্ধকারে ছিল ঠাকুরগাঁও শহরে সাত বীরশ্রেষ্ঠর স্মৃতির উদ্দেশে নির্মিত ‘সূর্য সন্তান’ ম্যুরালটি । রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে ম্যুরালটির নিচে বীরশ্রেষ্ঠদের নামের লেখাগুলো উঠে গিয়েছিল। এই নিয়ে কয়েকটি গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পর নজরে আসে প্রশাসনের।
সম্প্রতি সাত বীরশ্রেষ্ঠর স্মৃতির উদ্দেশে নির্মিত ম্যুরাল ‘সূর্য সন্তান’ ফলকের আলোকিত ও রক্ষনাবেক্ষনের কাজ শেষ করেছেন জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল।
ঠাকুরগাঁওয়ের জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল বলেন, “সূর্য সন্তান” ম্যুরালটির সংবাদ প্রচারের পর আমাদের দৃষ্টি গোচর হলে জেলা পরিষদের সঙ্গে আলোচনা করে মুক্তিযুদ্ধের সাত বীরশ্রেষ্ঠের ‘সূর্য সন্তান’ ম্যুরালটি আলোকিত ও নতুন করে বীরশ্রেষ্ঠের লেখা নামগুলো ঠিক করা হয়েছে। শীঘ্রই জেলায় সকল ৭১’ শহীদদের স্মৃতিসৌধ বর্ধ্যভুমি সংরক্ষন ও আলোকিত করা হবে বলে তিনি জানান।
জেলা পরিষদ অডিটোরিয়াম হলরুমের সামনে নির্মিত ‘সূর্য সন্তান’ গত শুক্রবার রাতে ম্যুরালের অন্ধকার থেকে আলোকিত হওয়ার এ চিত্র দেখা যায়। ম্যুরালটির ছবি তোলার সময় পাশে এসে দাঁড়ান পথচারী মাজেদুর রহমান। তিনি বলেন, ‘আমি আগে জানতাম না এখানে সাত বীরশ্রেষ্ঠর ম্যুরাল ছিল। এতদিন অন্ধকারে ছিল সূর্য সন্তানের ম্যুরালটি, যা বর্তমানে আলোকিত হয়েছে। ধন্যবাদ প্রশাসনকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য।
যাদের রক্তের বিনিময়ে আমরা পেয়েছি সোনার এই বাংলাদেশ তাদের স্মৃতিকে কেউ যেন অবমূল্যায়ন না করে সকলের প্রতি তিনি অনুরোধ জানান।
ভাষা সৈনিক আকবর হোসেন জানান, যাদের জন্য আমরা বাংলা ভাষায় কথা বলছে পারছি। আজ ঠাকুরগাঁওয়ে তারাই অবহেলিত।’ শহীদ মিনারে যখন জুতা পড়ে, আড্ডা দিতে দেখি। খুব কষ্ট লাগে তখন। নতুন প্রজন্মের অভিভাবকরা ও তাদের সন্তানদের নৈতিকতা দিন দিন হারিয়ে যাচ্ছে। ভাষা আন্দোলনের বিষয়ে তারা কেন জানি জানতে আগ্রহী না। প্রশাসন যদি বড় মাঠের শহীদ মিনারটি সারা বছর রক্ষনাবেক্ষনের দায়িত্ব পালন করে তাহলে ভাষা শহীদদের আত্নার শান্তি পাবে।
উল্লেখ্য, জেলা পরিষদের তত্ত্বাবধানে ছয় লাখ টাকা ব্যয়ে ঠাকুরগাঁও জেলা পরিষদ অডিটোরিয়াম হলরুমের সামনে সাত বীরশ্রেষ্ঠকে স্মরণীয় করে রাখতে ‘সূর্য সন্তান’ নামে একটি ম্যুরাল নির্মাণ করা হয়। গত ২০১২ সালের ২৫ মার্চ তৎকালীন পানিসম্পদমন্ত্রী রমেশ চন্দ্র সেন সূর্য সন্তানদের ম্যুরালটি উদ্বোধন করেন।
ঠাকুরগাঁওবাসী জেলা সকল স্মৃতিসৌধ ও বধ্যভুমি শুধু দিবস উপলক্ষে যন্ত না দিয়ে সারা বছর পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখার আহবান জানান।
ঠাকুরগাঁওয়ে ‘সূর্য‘ সন্তানদের আলোকিত করেছেন জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল

মতামত.........