,

গুলশানের আর্টিসান রেন্টুরেন্টে হামলায় নিহতদের লাশ হস্তান্তর চলছে

2016_07_04_17_49_36_01fEsA70bKNcuu2L6QQqXCN3nnCASf_originalসংবাদ সবসময় ডেস্ক :

গুলশানের হলি আর্টিসান রেন্টুরেন্টে সন্ত্রাসী হামলায় নিহতদের লাশ হস্তান্তর চলছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত সেখানে ৩টি লাশ আনুষ্ঠানিকভাবে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ছাড়া ১৭ জন বিদেশিসহ অন্য লাশগুলো রাষ্ট্রীয় আনুষ্ঠানিকতা শেষে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

সোমবার (৪ জুলাই) সকালে আর্মি স্টেডিয়ামে প্রধানমন্ত্রী নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এরপর লাশগুলো হস্তান্তর প্রক্রিয়া শুরু হয়। ইন্টার সার্ভিস পাবলিক রিলেশন্স’র (আইএসপিআর) পরিচালক লে. কর্নেল রাশিদুল ইসলামের বরাত দিয়ে এসব তথ্য জানায় বাসস।

পরিচালক বলেন, ‘বিদেশি নাগরিকদের লাশ হস্তান্তরের আনুষ্ঠানিকতা চলছে। লাশগুলো ঢাকা সমন্বিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) রয়েছে।’ তবে তিনি নিহত ৬ হামলাকারী সম্পর্কে কিছু বলেননি।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী আজ সকালে গুলশানে সন্ত্রাসী হামলায় নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

শুক্রবারের এই পৈশাচিক হামলার পর সরকার ঘোষিত দুই দিনের রাষ্ট্রীয় শোকের দ্বিতীয় দিনে প্রধানমন্ত্রী বনানীর আর্মি স্টেডিয়ামে দেশি-বিদেশি নিহতদের স্মরণে নির্মিত মঞ্চে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানান।

এ মঞ্চে দুজন বাংলাদেশি ফারাজ আয়াজ হোসেন ও ইশরাত আখন্দ এবং বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক অবিন্তা কবীরের কফিন রাখা হয়। এর মধ্যে বাংলাদেশিদের কফিন বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা এবং অবিন্তা কবীরের কফিন বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের পতাকায় ঢেকে দেয়া হয়।

নিহতদের স্মরণে মঞ্চটি বাংলাদেশ, ভারত, ইতালি, জাপান ও যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় পতাকায় সজ্জিত করা হয়।

পুষ্পাঞ্জলি নিবেদন পর নিহতদের প্রতি সম্মান প্রদর্শনে প্রধানমন্ত্রী সেখানে কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন।
মন্ত্রিপরিষদ সদস্য, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা, সংসদ সদস্য, নিহতদের স্বজন, তিনবাহিনী প্রধান ও বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্সিয়া বার্নিকাট, জাপানের রাষ্ট্রদূত মাসাতো ওয়াতানবে, ভারতের হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রীংলা, ইতালীর রাষ্ট্রদূত মারিও পালমা অনুষ্ঠানে নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

এরপর নিহতদের পরিবার-পরিজন, বন্ধুপ্রতীম রাষ্ট্রের কূটনীতিকগণ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা, ১৪ দলীয় নেতা, এফবিসিসিআই নেতা, নিহত পুলিশ সদস্যদের পরিবারের সদস্য, ঢাকা দুই সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হক ও সাঈদ খোকন মঞ্চে নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এই সন্ত্রাসী হামলার পর হলি আর্টিজান বেকারী রেস্তোরাঁয় কমান্ড অভিযান চালিয়ে ২০ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়। শনিবার ১৩ মিনিটের এই কমান্ড অভিযানে ১১ ঘণ্টার নাটকীয় জিম্মি ঘটনার অবসান হয়। এ সময় রেস্তোরাঁটি থেকে ৩ বিদেশিসহ ১৩ জিম্মিকে উদ্ধার করা হয়। এরমধ্যে ঘটনাস্থলে সন্দেহভাজন একজন হামলাকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ ছাড়া এ উদ্ধার অভিযানে ৬ বন্দুকধারীও নিহত হন।

এর আগে এ সন্ত্রাসী হামলা প্রতিহত করতে গিয়ে বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সালাউদ্দিন আহমেদ খান ও গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) উপকমিশনার রবিউল ইসলাম নিহত হন।

মতামত.........