Gaibandha sumon 29-07-16সুমন কুমার বর্মন, গাইবান্ধা (সদর) প্রতিনিধি:
ঘাঘট, তিস্তা ও ব্রহ্মপুত্র নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় গাইবান্ধার সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির আরোও মারাত্মক অবনতি হয়েছে। বন্যা দূর্গতদের সহায়তা লক্ষ্যে জেলা প্রশাসন আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।  (২৯ জুলাই) শুক্রবার ঘাঘট নদীর পানি ৯২ সে: মি. এবং ব্রহ্মপুত্র নদের ৯২ সে. মি. বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। তিস্তার পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় তা বিপত সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।  অপর দিকে এক সপ্তাহে এ পর্যন্ত বন্যার পানিতে ডুবে ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে স্থানীয় সূত্রগুলো জানিয়েছে।28-07-2016

এছাড়া জেলার ৪টি উপজেলায় এ পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ৩ লাখ মানুষ বন্যা কবলিত হয়ে দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। ওঁয়াপদা বাঁধের উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হওয়ায় বাঁধে আশ্রয় নেয়া মানুষজনের দূর্ভোগ বেড়ে গিয়েছে। ফলে অনেকেই উঁচু জায়াগায় আত্বীয়-স্বজনের বাড়ীতে আশ্রয় নিচ্ছেন।
গাইবান্ধা সদর উপজেলার ঘাগোয়া, খোলাহাটী, গিদারী,কামারজানি ও মালিবাড়ী ইউনিয়নের অধিকাংশ এলাকা বন্যা কবলিত হওয়ায় বিশুদ্ধ পানি ও গবাদি পশুর গো-খাদ্যের মারাত্বক অভাব দেখা দিয়েছে। এই সব এলাকার অধিকাংশ বিদ্যালয়গুলোতে বন্যার পানি ঢুকে পড়ায় বিদ্যালয়গুলো বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। 600x400_25f42883a4d4192750ff000fa8d2a9d8_Bogra_Pic_26

সদর উপজেলার কামারজানি হাট, তহশিল অফিস, ফুলছড়ি এবং সাঘাটার ভরতখালির হাট তিনটি বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে। হাটের উপর দিয়ে এখন নৌকা চলছে। বৃহত্তর ওই হাট তিনটি পানিতে ডুবে যাওয়ায় ওইসব এলাকার মানুষের ব্যবসা-বাণিজ্য ও বেচাকেনা বন্ধ হয়ে গেছে।এছাড়া জেলার ১১৬টি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ২৫টি হাইস্কুল বন্যার পানিতে ডুবে যাওয়ায় সেগুলোতে পাঠদান বন্ধ হয়ে গেছে।

গাইবান্ধা কৃষি বিভাগ সংবাদ সবসময়কে জানিয়েছে, ২ হাজার ৪৪ হেক্টর বিভিন্ন ফসল পানির নিচে তলিয়ে গেছে।

সিভিল সার্জন ডাঃ নির্মলেন্দু চৌধুরী সংবাদ সবসময়কে জানিয়েছেন, বন্যা কবলিত ৪টি উপজেলায় ৬৫টি মেডিকেল টিম স্বাস্থ্যসেবায় কর্মরত রয়েছে।

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দুর্গত এলাকার মানুষের মধ্যে বিতরণের জন্য ৬শ’ মে.টন চাল ও ১৪ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পীকার মো. ফজলে রাব্বি মিয়া বৃহস্পতিবার বিকেলে ফুলছড়ি উপজেলার গজারিয়া ও ফুলছড়ি ইউনিয়নের বন্যা কবলিত বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করেন এবং দুর্গত ৫শ’ মানুষের মধ্যে নগদ টাকাসহ বিভিন্ন ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেন।
এদিকে গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক বন্যা দুর্গত মানুষের মাঝে সহায়তা পৌঁছে দেয়ার জন্য সোসাল মিডিয়া সেল খুলেছেন। যেখান থেকে যে কেউ সেবা নিতে পারেন।

গাইবান্ধায় সাড়ে ৩ লাখ বানভাসি মানুষের আহাজারি

মতামত.........