,

গাইবান্ধায় শহীদ মিনারের উদ্বোধন, মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা

সুমন কুমার বর্মন, গাইবান্ধা প্রতিনিধি :

ভাষা আন্দোলনের শহীদ স্মরণে গাইবান্ধা পৌর পার্কে ‘আধুনিকায়নকৃত শহীদ মিনার’ এর উদ্বোধন ও মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। রোববার (১৭ ডিসেম্বর) শহীদ মিনারটির ফলোক উন্মোচন করে এবং পর্দা টেনে উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি জাতীয় সংসদের হুইপ মাহাবুব আরা বেগম গিনি।

পৌর মেয়র অ্যাড. শাহ মাসুদ জাহাঙ্গীর কবির মিলনের সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক গৌতম চন্দ্র পাল, পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ, জেলা আ’লীগ সাধারণ সম্পাদক আবু বকর সিদ্দিক, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ওয়ালিউর রহমান রেজা, পৌর প্যানেল মেয়র জিএম চৌধুরী মিঠু প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপন করেন অধ্যাপক জহুরুল কাইয়ুম।

পরে গাইবান্ধা পৌর এলাকার সকল মুক্তিযোদ্ধাদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়ে ও উপহার প্রদান করে সংবর্ধিত করা হয়। সংবর্ধিত করেন জাতীয় সংসদের হুইপ মাহাবুব আরা বেগম গিনি ও অন্যান্য অতিথিবৃন্দ।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে, পুরাতন শহীদ মিনারটির সংস্কার ও ব্যাপক আধুনিকায়ন করা হয়। ১৯৫৫ সালে রাষ্ট্র ভাষা সংগ্রাম পরিষদ প্রথম এই শহীদ মিনারটির নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করে। এরপর আনুষ্ঠানিক ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন করা হয় ১৯৫৬ সালের ২১শে ফেব্র“য়ারি। তৎকালিন আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি তছলিম উদ্দিন খান। ১৯৫৭ সালে নির্মাণ করা হয় পুর্ণাঙ্গ শহীদ মিনারটি। কিন্তু ১৯৭১ সালে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী তা ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেয়। অতঃপর ১৯৭১ সালে পৌরসভার প্রকৌশলী ওবায়দুর রহমান ও নদিয়া ভূষণের প্রণীত নক্সায় পুনঃরায় শহীদ মিনারটি নির্মাণ করা হয়। যার ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন করেন বদিউল আলম চুনির পিতা বছির উদ্দিন আহমেদ।

মতামত.........