historyইতিহাস আজীবন কথা বলে। ইতিহাস মানুষকে ভাবায়, তাড়িত করে। প্রতিদিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনা কালক্রমে রূপ নেয় ইতিহাসে। সেসব ঘটনাই ইতিহাসে স্থান পায়, যা কিছু ভালো, যা কিছু প্রথম, যা কিছু মানবসভ্যতার অভিশাপ-আশীর্বাদ।

তাই ইতিহাসের দিনপঞ্জি মানুষের কাছে সবসময় গুরুত্ব বহন করে। এই গুরুত্বের কথা মাথায় রেখে বাংলানিউজের পাঠকদের জন্য নিয়মিত আয়োজন ‘ইতিহাসের এই দিন’।

২৬ জুন ২০১৬, রবিবার। ১২ আষাঢ়, ১৪২৩ বঙ্গাব্দ। এক নজরে দেখে নিন ইতিহাসের এ দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনা
• ১৪৮৩ – রাজা তৃতীয় রিচার্ড ইংল্যান্ডের রাজা হন।
• ১৮১৯ – বাইসাইকেলের পেটেন্ট করা হয়।
• ১৯২৪ – আমেরিকান সৈন্যরা ডোমিনিয়ন রিপাবলিক ত্যাগ করে।
• ১৯৪০ – দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ শুরু।
• ১৯৪৫ – জাতিসংঘ সনদ স্বাক্ষরিত।
• ১৯৬০ – সোমালিল্যান্ড ইংরেজদের কাছ থেকে স্বাধীনতা পায়।
• ১৯৭৪ – প্রথমবারের মতো বারকোড ব্যবহার করে কোনো খুচরা পণ্য বিক্রি হয়। পণ্যটি ছিল চুইংগাম।
• ১৯৭৬ – তৎকালীন পৃথিবীর উঁচুতম ভবন সি এন টাওয়ার খুলে দেওয়া হয়।
• ১৯৭৭ – এলভিস প্রিসলি শেষ কনসার্ট করেন।
• ১৯৭৯ – কিংবদন্তির মুষ্টিযোদ্ধা মোহাম্মাদ আলী অবসর নেন।

জন্ম
• ১৮৮৭ – বাংলা ভাষার কবি যতীন্দ্রনাথ সেনগুপ্ত।
• ১৯১২ – ব্রিটিশবিরোধী স্বাধীনতা আন্দোলনের শহীদ বিপ্লবী জীবন ঘোষাল।
• ১৯১৩ – মার্তিনিকের একজন ফ্রাঙ্কোফোন কবি, লেখক ও রাজনীতিবিদ এমে সেজায়ার।

মৃত্যু
• ১৮৩৬ – ফরাসি জাতীয় সংগীতের লেখক ক্লদ জোসেফ রুজে দ্য লিল।
• ১৯৯৪- বাঙালি লেখিকা জাহানারা ইমাম। শহীদ জননী জাহানারা ইমাম একইসঙ্গে কথাসাহিত্যিক ও শিক্ষাবিদ। একাত্তরের ঘাতক দালালবিরোধী আন্দোলনে তিনি নেতৃত্ব দিয়েছেন। একাত্তরের দিনগুলি তার বিখ্যাত গ্রন্থ। ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেন জাহানারা ইমামের বড় ছেলে শফি ইমাম রুমী। রুমী বেশ কয়েকটি সফল গেরিলা অপারেশনের পর পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর হাতে গ্রেফতার হন। পাক হানাদাররা তাকে নির্মমভাবে হত্যা করে। যুদ্ধবিজয়ের পর রুমীর বন্ধুরা জাহানারা ইমামকে সব মুক্তিযোদ্ধাদের মা হিসেবে বরণ করে নেন। সে থেকেই শহীদ জননীর মা মযার্দায় জাহানারা ইমামকে ভূষিত করা হয়।

তথ্যসূত্র: ইন্টারনেট।

ইতিহাসের এই দিন: শহীদ জননী জাহানারা ইমামের প্রয়াণ

মতামত.........