imagesমহসিন সাদেক, লাখাই (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ

লাখাইয়ে হুহু করে বাড়ছে ব্যাটারী চালিত টমটম,সিএনজি ও ব্যাটারী চালিত অটো রিক্সা ফলে প্রায় প্রতিদিনই ঘটছে সড়ক দুর্ঘটনা । এসব পরিবহনের আনাড়ী চালকদের বেপরোয়া গতিতে চলার কারনে প্রায়ই ঘটছে মারত্মক সব দুর্ঘটনা। এতে উপজেলার সড়ক গুলোতে অনেকটা বাধ্য হয়েই জীবনের ঝুকি নিয়ে চলাচল করছে মহিলা শিশু কিশোর সহ উপজেলার বিভিন্ন স্কুল কলেজের ছাত্র /ছাত্রী সহ এলাকার জনসাধারন।

প্রায় প্রতিদিনই হবিগঞ্জ লাখাইর প্রধান সড়ক সহ বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রধান সড়কে সংযুক্ত রাস্থা গুলোতে ঘটছে মারত্মক সব দুর্ঘটনা। এতে করে মারত্মক আঘাতের কারনে কেউ বা হারাচ্ছে শরীরে গুরত্বপুর্ন অঙ্গের কার্যকারিতা কেউ বরন করছে পুঙ্গত্ব আবার কেউ আজীবনের জন্য বয়ে বেরাচ্ছে বেদনা নাশক ঔষধের গ্লানি। এরই ধারবাহিকতায় গত শুক্রবার উপজেলার বুল্লা সিংহগ্রাম সংযুক্ত সড়কে ব্যটারি চালিত অটোরিক্সার ধাক্কায় আহত আব্দুর জব্বার (৬৫) নামের গুরুত্বর আহত এক ব্যাক্তি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে সিলেট এএমজি ওসামানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর কুলে ঢলে পড়ে।

সুত্রে যানা যায়, গতকাল শুক্রবার দুপুরে সিংহগ্রামের আব্দুস সালামের পুত্র আব্দুল জাব্বার স্থানীয় বুল্লা বজার থেকে হেটে বাড়ি ফিরছিলেন এসময় একটি ব্যাটারী চালিত অটোরিক্সার আনাড়ী চালক তাকে চাপা দিলে তিনি আহত হন। গুরুত্বর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে হবিগঞ্জ আধুনিক সদর হাসাপাতালে পরবর্তীতৈ আশংকাজন অবস্থায় সিলেট ওসামানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঐদিন রাতে মারা যান তিনি।

অনুসন্ধানে যানা যায়,বিগত কয়েক মাসে উপজেলার বিভিন্ন সড়কে প্রায় শতাদিক যাত্রিবাহি সিএনজি,ব্যাটারী চালিত টমটম ও ব্যাটারী চালিত রিক্সায় দুর্ঘটনায় পতিত হয়েছে। এর মধ্যে বেশ কয়েকটি দুর্ঘটনা ছিল অত্যান্ত মারত্মক ।

সরেজমিনে দেখা যায়,উপজেলা প্রায় শতাধিক সিএনজি ,টমটম,ব্যাটারী চালিত অটো রিক্সা ছাড়াও কোন ধরনের অনুমদিত ফিটনেস ছাড়াই স্যালো ইঞ্জিন বসিয়ে তৈরী টমটম ও চলাচল করছে বিভিন্ন সড়কে। এসব পরিবহনের চালকদের মধ্যে কেউ ছিল হোটেল শ্রমিক, কেউ ফেরিওয়ালা বা রিক্সায়ালা কেউবা যৌতুক হিসাবে টমটম বা ব্যাটারী চালিত অটোরিক্সার মালিক থেকে চালক। যাদের অধিকাংশেরই পরিবহন চালনায় ড্রাইভিং লাইসেন্স থাকা দুরের কথা অনেকেরই নেই কোন নুন্যতম প্রশিক্ষন পর্যন্ত। ফলে অহরহ ঘটছে মারত্মক সব দুর্ঘটনা । সচেতন মহলের দাবী দ্রুত উপজেলায় চলাচলরত টমটম ও ব্যাটারী চালিত অটোরিক্সা গুলোকে যথাযত আইনের আওতায় এনে প্রকৃত দক্ষ ও লাইসেন্স প্রাপ্ত চালকদের নিবিঘ্নে চলাচলের সুযোগ এবং অবৈধ ও অদক্ষক লাইসেন্স বিহীনদের আইনের আওতায় এনে কটোর হাতে দমন করনে যতাযত কতৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছে এলাকাবাসী ।

অবশেষে মারা গেল লাখাইয়ে অটোরিক্সার ধাক্কায় আহত আব্দুল জাব্বার

মতামত.........